মুভিং এভারেজ

মুভিং এভারেজ কি?

মুভিং এভারেজ হচ্ছে ফরেক্স ট্রেডারদের জন্য  সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন ইন্ডিকেটর । একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মার্কেটের এভারেজ প্রাইজ ভ্যালু কেমন ছিল তা বোঝার জন্য মুভিং এভারেজ ব্যবহার করা হয়। মুভিং এভারেজ সম্পর্কে ভাল ধারনা আছে এমন যেকোনো ট্রেডার মুভিং এভারেজ এর সাহায্যে খুব সহজেই মার্কেটের ভবিষ্যৎ অবস্থান সম্পর্কে ধারনা করতে পারে। মুভিং এভারেজ ইনডিকেটর টি মেটাট্রেডার ইন্ডিকেটর লিস্টে ডিফল্ট হিসেবে দেয়া আছে।

মুভিং এভারেজ কীভাবে কাজ করে?

মুভিং এভারেজকে বলা হয় ফরেক্স টেকনিক্যাল এনালাইসিসের প্রাণ। ফরেক্স মার্কেটে মুভিং এভারেজ ইন্ডিকেটর দিয়ে হাই, লো, মিডেল, ক্লোজ, ওপেন, টিপিকাল ইত্যাদির গড় বাহির করা হয়। কোনটি আপনার সবচেয়ে ভাল লাগে সেটি আপনি চাইলে নিজে নিজে যাচাই করে নিতে পারেন এবং আপনার মত করে মার্কেট প্রাইস ফোরকাস্ট করতে পারবেন। মুভিং এভারেজ সাধারনভাবে সম্ভব্য সাপোর্ট এবং রেসিসটেনস এর এরিয়া এবং গতি পরিমাপক একটি টুল হিসেবে ব্যবহারিত হয় ।

মুভিং এভারেজ ইনডিকেটর এর মধ্যে পিরিয়ড, শিফট, স্টাইল, লেভেলস এবং ভিজুলাইজেশন আছে। পিরিয়ড মানে হচ্ছে আপনি কতগুলো ক্যান্ডেলস্টিক এর গড় নির্ণয় করবেন। শিফট দিয়ে বর্তমান চার্ট টি আগে নাকি পরে দেখবেন টা বুঝানো হয়। স্টাইল দ্বারা আপনার পছন্দমত মুভিং এভারেজ তৈরি করবেন। লেভেলস দিয়ে বর্তমান মুভিং এভারেজ এর সমান্তরাল লাইন তৈরি করা। ভিজুলাইজেশন দিয়ে আপনি কোন কোন চার্টতে ব্যবহার করবেন তা সিলেক্ট করবেন।

মুভিং এভারেজ এর ধরনঃ

ফরেক্স মার্কেটে মোটামুটি ৪ ধরণের মুভিং এভারেজ ট্রেডাররা বেশি ব্যাবহার করে থাকেঃ
১. সিম্পল মুভিং এভারেজ(SMA)
২. এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ (EMA)
৩. স্মুথড মুভিং এভারেজ (SMMA)
৪. লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ (LWMA)

 

১. সিম্পল মুভিং এভারেজ(SMA) কি?

বাই বা সেল করার সংকেত লাভের জন্য এটি একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। এই ইন্ডিকেটরটি দিয়ে পিরিয়ড এবং প্রাইস এর ভিত্তিতে একটি গাণিতিক হিসাব এর মাধ্যমে আপনি ট্রেন্ড ডিরেকশন বুঝতে পারবেন। আপনি কত সময়ের মুভিং এভারেজ পছন্দ করেন তার উপরে নিরভর করবে আপনি দীর্ঘ মেয়াদী নাকি স্বল্প মেয়াদী ট্রেড করতে আগ্রহী হবেন। ট্রেডাররা ৩টি সময়ের মুভিং এভারেজ সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করেন। সেগুলো হলঃ
• ১০ দিনের মুভিং এভারেজ (সর্ট টার্ম )
• ৫০ দিনের মুভিং এভারেজ (ইন্টারমিডিয়েড টার্ম)
• ২০০ দিনের মুভিং এভারেজ (লং টার্ম)mabdfx

কিভাবে সিম্পল মুভিং এভারেজ বের করব?

গাণিতিক সুত্রঃ
SMA = নির্দিষ্ট পিরিয়ডে ক্লোজিং প্রাইসের যোগফল / পিরিয়ড সংখ্যা

উদহারনঃ
ধরুন শেষ ৫ দিনের মার্কেট ক্লোজিং প্রাইস দেওয়া আছে। এগুলো হলঃ
১ম দিন= ২.৩১৬৬,
২য় দিন= ২.৩৩৪১,
৩য় দিন= ২.৩৩৯৮,
৪র্থ দিন= ২.৩৩৬৪,
এখন এদের যোগফলকে ৪ দিয়ে ভাগ করুনঃ
১.২১৬৬ + ১.২৩৪১ + ১.২৩৯৮+ ১.২৩৬৪,+ ১.২৩০৫ / ৫ = ১.২৩১৪

সিম্পল মুভিং এভারেজ এর ট্রেড সিগন্যালঃ
আপনি বাই করবেন যদি দেখন মুভিং এভারেজ প্রাইস বর্তমান মার্কেট প্রাইস এর উপরে আছে। এবং প্রাইস যদি বর্তমান মার্কেট প্রাইস এর নিচে হয় তাহলে সেল করবেন।

২. এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ (EMA) কি?

এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ হচ্ছে সিম্পল মুভিং এভারেজ এর মতই কিন্তু দুটোর মধ্যে ছোট একটু পার্থক্য আছে। এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজও মার্কেট ডিরেকশন দেয় তবে পার্থক্য এটাই যে এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজে তুলনামুলক পূর্ব পিরিয়ড প্রাইস থেকে বর্তমান পিরিয়ড প্রাইস কে অধিক গুরুত্ব দেয়া হয়।

emabdfx

সিম্পল মুভিং এভারেজ এ মার্কেটের সব ডাটার বা অথবা আপনি যতগুলো সিলেক্ট করে দিবেন তার সবগুলোর গড় দেখাবে। কিন্তু মাঝে মাঝে মার্কেটের ব্যপক পরিবরতন হলেও সিম্পল মুভিং এভারেজ এর তেমন কোন পরিবরতন হয় না। আর এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজেও সব ডাটার গড় বের করা হয় কিন্তু এটি বর্তমান মার্কেটের প্রাইস আপ ডাউনকে বেশি গুরুত্ব দেয়।

উদাহরনঃ

মনে করুন, আপনি ৫ দিনের সিম্পল মুভিং এভারেজ বের করবেন,
প্রথম দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩১৬৬,
দ্বিতীয় দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩৩৪১,
তৃতীয় দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩৩৯৮,
চতুর্থ দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩৩৬৪,
পঞ্চম দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩৩০৫

একটু খেয়াল করলেই দেখবেন এখানে ১ম দিনের ক্লোজিং প্রাইস এর সাথে ২য় দিনের ক্লোজিং প্রাইস এর একটা বড় পার্থক্য দেখা যাচ্ছে যা পরবর্তী ৩দিনের এভারেজ ক্লোজিং প্রাইস থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন। এমন হঠাৎ করে প্রাইসের পরিবর্তনটুকু স্বাভাবিক নয়। সম্ভবত ২য় দিন ভালো কোন ইকোনমিক নিউজ এসেছে যার কারনে প্রাইস অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। সিম্পল মুভিং এভারেজে নির্দিষ্ট কোন দিন এর এমন দামের বৃদ্ধি বা হ্রাস পাওয়াকে তেমন কোন গুরুত্ব দেওয়া হয় নি। এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজের সাথে সিম্পল মুভিং এভারেজ এর পার্থক্যটা এখানেই। এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজে প্রথম দুদিনের প্রাইস থেকে শেষ ৩দিনের প্রাইসকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে মুভিং এভারেজ বের করা হয়।

৩. লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ (LWMA)

লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ ব্যবহারের একটা বড় সুবিধা হচ্ছে এটি সিম্পল মুভিং এভারেজ তুলনায় অনেক দ্রুত মার্কেটের ভবিষ্যৎ মুভমেন্ট প্রকাশ করে থাকে। কারন আমরা জানি যে অতীতের মার্কেটের ডাটা থেকে আমরা ভবিষ্যৎ মার্কেটের ধারনা করে থাকি। লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ ইনডিকেটরটি অতীত থেকে বর্তমান মার্কেটের প্রাধান্য বেশি দিয়ে থাকে। এটি কোন কোন ক্ষেত্রে এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ থেকেও অনেক দ্রুত ওঠা নামা করে। নিচের ছবিতে আমরা তিনটি মুভিং এভারেজ একই একটি ছবিতে দেখবো।

lnmabdfx

ছবিতে দেখুন হলুদ রংটি লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ, সবুজ রংটি সিম্পল মুভিং এভারেজ এবং নিল রংটি টি হচ্ছে এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ. এখানে খেয়াল করলে দেখবেন লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ বর্তমান মার্কেটকে বেশি প্রাধান্য দিয়ে অনেক দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। অনেক সময় মার্কেটে ফেইক আউট হয় বলে এই মুভিং এভারেজ টি এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ ও সিম্পল মুভিং এভারেজ এর মত খুব বেশি ব্যবহার হয় না।

৪. স্মুথড মুভিং এভারেজ (SMMA)

এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ ও সিম্পল মুভিং এভারেজ এর সমন্বয়ে প্রস্তুত এক বিশেষ ধরনের এভারেজ হচ্ছে এই স্মুথড মুভিং এভারেজ । আপনি লং পিরিয়ডে ট্রেড করার সময় দেখবেন স্মুথড মুভিং এভারেজ কিছুটা এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ এর মতই কাজ করে।

smabdfx

উপরের ছবিতে লক্ষ করুন- নীল রঙের লাইন দ্বারা সিম্পল মুভিং এভারেজ এবং লাল লাইনটি দ্বারা স্মুথড মুভিং এভারেজ বোঝানো হয়েছে। আশাকরি ছবিটি দেখেই আপনি স্মুথড মুভিং এভারেজ বুঝে গেছেন, আর কোন ব্যক্ষা দেয়ার প্রয়োজন নেই।
উপরোক্ত আলোচনা থেকে মুভিং এভারেজ সম্পর্কে আপনাদের ধারনা পরিস্কার হয়েছে বলে আশা রাখি। তারপরও কারো কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্টে প্রশ্ন করতে পারেন।

Bollinger Band